আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী লিটন হায়দার।

0
88
 মনপুরা প্রতিনিধিঃ- আসন্ন দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের বাকী আছে আরও কয়েক মাস। এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়নি নির্বাচন কার্যক্রম। তবে সম্ভাব্য প্রার্থীরা প্রচার প্রচারণা শুরু করেছে। চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের জন্য সম্ভাব্য প্রার্থীরা এখন মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন।
তবে তৎপরতা বেশি আওয়ামী লীগ ও বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশীদের।ভোটাররা এখনই আলোচনা শুরু করেছেন। ভোলা জেলার মনপুরা উপজেলার ৪ নং দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে এলাকার ভোটারদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট সমাজসেবক মোঃ লিটন হায়দার। তিনি মনপুরা উপজেলার দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের মোঃ ছাত্তার শাহর সন্তান। ছাত্র জীবন থেকে প্রগতিশীল রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে তিনি এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড, হত-দরিদ্র জনগণকে বিভিন্নভাবে সাহায্য সহযোগিতা করে সকলের প্রাণ ছুঁয়েছেন। মনপুরায় মাদকবিরোধী আন্দোলনে তিনি ছিলেন সর্বাঙ্গে।
মাদকমুক্ত দক্ষিণ সাকুচিয়া গড়তে ইউনিয়নের আলোকিত মানুষদের নিয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করেন তিনি। এ আন্দোলনের মাধ্যমে অনেকটায় কমে এসেছিলো মাদক ও চোরাকারবারির দৌরাত্ম। আসন্ন নির্বাচন নিয়ে দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ড ও চা দোকান থেকে শুরু করে প্রতিটি বাজারে চলছে নানা আলোচনা-পর্যালোচনা। শুরু হয়েছে সম্ভাব্য এই চেয়ারম্যান প্রার্থীর গণসংযোগ।
এলাকায় এলাকায় দৌড়ঝাঁপ। সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও প্রচারণা চলছে জোরেশোরে। গতকাল বিকেলে ইউনিউনের বেশ কয়েকটি ওয়ার্ড ও বাজারে নৌকা প্রতীকের পক্ষে গণসংযোগ করেন তিনি। এ সময় তার সাথে উপস্থিত , ইউনিয়ন যুবলীগ ছাত্রলীগ ও আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীরা। চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী লিটন হায়দার বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনাকালীন সময়ে জনপ্রতিনিধি না হয়েও এলাকার কর্মহীন ও অসহায়দের সাথে ছিলাম, আগামীতে এলাকার অবেহেলিত ও অসহায় মানুষের পাশে থেকে কাজ করতে চাই। ইউনিয়নবাসীকে সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত করবো।আমি যুবকদের উন্নয়নে কাজ করতে চায় এবং এলাকার উন্নায়নে নিজেকে উৎসর্গ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here