আবারোও গৃহবন্দি মেয়েসহ মেহবুবা মুফতি

0
7

ভারতের জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী পিডিপিনেত্রী মেহবুবা মুফতিকে দেড় মাস পার হতে না হতেই ফের গৃহবন্দি করার অভিযোগ উঠেছে। তাঁকে ফের আটকে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন স্বয়ং মেহবুবা মুফতি। এমনকি তিনি অভিযোগ করেছেন, তাঁর মেয়ে ইলতিজাকেও গৃহবন্দি করে রেখেছে জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসন। পিডিপির যুবনেতা ওয়াহিদ উর রহমান দক্ষিণ কাশ্মীরে পিডিপিকে ফের রাজনৈতিক ময়দানে তুলে আনার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন। রাজনৈতিকভাবে তিনি বরাবরই যথেষ্ট সক্রিয়। পুলওয়ামা থেকে নিজের মনোনয়নও পেশ করেছিলেন ওয়াহিদ। তবে জম্মু-কাশ্মীরে জেলা উন্নয়ন কাউন্সিল নির্বাচনের আগেই তাঁকে গ্রেপ্তার করে ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনআই। এদিকে, আজ শনিবার থেকে আট দফায় শুরু হচ্ছে জম্মু-কাশ্মীরের স্থানীয় জেলা উন্নয়ন কাউন্সিলের নির্বাচন। প্রশাসন সূত্রে দাবি করা হয়েছে, এই নির্বাচন বানচাল করার জন্য বড়োসড়ো নাশকতার ছক কষেছে জঙ্গিরা। এমন পরিস্থিতিতে জঙ্গি যোগ থাকার সন্দেহে গ্রেপ্তার করা হয়েছে পিডিপির যুব শাখার সভাপতি ওয়াহিদ উর রহমানকে। হিজবুল মুজাহিদিন কমান্ডার নাভিদ বাবুর সঙ্গে যোগাযোগ থাকার অভিযোগে এনআইএ ওয়াহিদকে গ্রেপ্তার করে। মুফতি টুইট করে বলেন, ‘আমাকে বেআইনিভাবে ফের আটক করে রাখা হয়েছে। গত দুদিন ধরে জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসন আমাকে ওয়াহিদ উর রহমানের সঙ্গে দেখা করতে দিচ্ছে না। অথচ এখানে বিজেপির মন্ত্রী ও নেতাদের অবাধে ঘুরতে দেওয়া হচ্ছে। অন্যদের বেলায় নিরাপত্তা কোনো ইস্যু নয়, শুধু আমার বেলায় সেটা ইস্যু হয়ে দাঁড়াচ্ছে।’ এর আগে জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ অনুচ্ছেদ প্রত্যাহারের সময় থেকে প্রায় ১৪ মাস ধরে পাবলিক সেফটি অ্যাক্টের আওতায় আটকে রাখা হয়েছিল মেহবুবা মুফতিকে। ১৪ মাস গৃহবন্দি থাকার পর গত ১৩ অক্টোবর মুক্তি পান তিনি। এরপর তিনি অপর কাশ্মীরি নেতা ওমর আব্দুল্লাহর সঙ্গে দেখা করে কাশ্মীরে ৩৭০ অনুচ্ছেদ ফেরানোর দাবি জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here