ঈশ্বরগঞ্জে চেয়ারম্যানের মৃত্যু! লাশের ময়না-তদন্তে চলছে আলোচনা-সমালোচনা।

0
122

তাপস কর,ময়মনসিংহ প্রতিনিধি।
ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার আঠারোবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আলমগীর হোসেন (৫০) মৃত্যুবরণ করেছেন। এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানার ওসি তদন্ত মো মুশফিকুর রহমান। আজ রবিবার সকালে মৃত্যু বরণ করলেও বিকেলে তাঁর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় চলছে আলোচনা সমালোচনা। এদিকে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন আজ এক শোক বার্তায় জানায় হৃদযন্তেরক্রীয়া বন্ধ হয়ে,চেয়ারম্যানের মৃত্যু হয়েছে।
স্থানীয় সূত্র জানায়, নিহত চেয়ারম্যানের বাড়ি উপজেলার আঠারোবাড়ি ইউনিয়নের বনগাঁও গ্রামে। গত দুইবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তাছাড়া আঠারোবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ-সম্পাদক ছিলেন তিনি। তিনি ছিলেন জনপ্রিয়। একটি কুচক্রীমহল চেয়ারম্যান ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে অপচেষ্টায় লিপ্ত।
নিহত চেয়ারম্যানের আলমগীর কানে ব্যাথা,স্ট্রোকে আক্রান্ত ছাড়াও শ্বাস কষ্টে ভুগছিলেন বিষয়টি তার পরিবারের সুত্রে জানা যায়। এ অবস্থায় গতকাল শনিবার রাতে তাঁকে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ রবিবার সকাল সাড়ে সাতটায় ইন্তেকাল করেন চেয়ারম্যান।
অন্য একটি সুত্র জানায়, গতকাল শনিবার রাতের বেলায় গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় চেয়ারম্যান আলমগীরকে প্রথমে শহরের মৈত্রী হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক স্ট্রোকে আক্রান্ত, তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে বলে জানায়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসা চলা অবস্থায় আজ রবিবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে চেয়ারম্যান আলমগীর মারা যান। এবং ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন আজকে এক শোক বার্তায় হৃদযন্তেরক্রীয়া বন্ধ হয়ে তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন। বিষয়টি নিয়ে চলছে ব‍্যাপক আলোচনা ও সমালোচনা। এদিকে হাসপাতাল থেকে লিখিতভাবে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানাকে মৃত্যুর বিষয়টি সন্দেহ হওয়ায় বিষয়টি অবহিত করা হয়। এ অবস্থায় কোতওয়ালি থানা পুলিশ লাশ ময়নাতদন্তের সিদ্ধান্ত নেয়। বিষয়টি নিয়ে জনমনে চলচছে আলোচনা-সমালোচনা।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মোখলেছুর রহমান জানান, কোতওয়ালি থানা থেকে মৃত্যুর ঘটনা অবহিত করেছে। পরে তিনি আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করার পরামর্শ দেন।

কোতওয়ালি থানার ওসি তদন্ত মো. মুশফিকুর রহমান জানান, হাসপাতাল থেকে মৃত্যুর কারণ হিসেবে রহস‍্যজনক। এরপরই এক ধরনের রহস্য থাকায় লাশ ময়নাতন্তের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এদিকে আঠারোবাড়ীর জনসাধারনের মাঝে বিষয়টি নিয়ে রহস‍্যজনক ও চলছে ব‍্যাপক আলোচনা-সমালোচনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here