টাংগাইলে সখিপুরে বাল্যবিবাহ ঠেকালেন ইউপি চেয়ারম্যান

0
14
 August 28, 2020 মোঃ তারেক ইসলাম সিয়াম, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :
বিস্তারিত :টাঙ্গাইলের সখীপুরে এক ইউপি চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে কাকড়াজান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম বিদ্যুৎ বিয়েটি বন্ধ করেন। বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পাওয়া মেয়েটি স্থানীয় একটি মাদ্রাসার নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। বিষয়টি নিশ্চিত করে ইউপি চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম বিদ্যুৎ বলেন, তাঁর ইউনিয়নের সাপিয়াচালা গ্রামের মৃত ইউসুফ আলীর মেয়ে মাদ্রাসাছাত্রীর (১৫) সঙ্গে পাশের ঘাটাইল উপজেলার সাগরদিঘী এলাকার এক ছেলের বিয়ের আয়োজন চলছিল। খবর পেয়ে তিনি ইউপি সদস্যদের নিয়ে ওই কনের বাড়িতে হাজির হন। পরে দুই পক্ষের অভিভাবকদের বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে বুঝিয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন । মেয়ের মা মেয়ের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেওয়ার মুচলেকা দেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসমাউল হুসনা বিয়েটি বন্ধ করায় সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ দেন। উল্লেখ্য, এক সপ্তাহের ব্যবধানে দুটি বাল্যবিবাহ অনুষ্ঠিত হওয়ায় কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসানকে গত মঙ্গলবার কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন ইউএনও। এ ঘটনার পর থেকে বাল্যবিবাহ ঠেকাতে ইউপি চেয়ারম্যানদের তৎপরতা বেড়েছে।
টাংগাইলে সখিপুরে বাল্যবিবাহ ঠেকালেন ইউপি চেয়ারম্যান August 28, 2020 মোঃ তারেক ইসলাম সিয়াম, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : বিস্তারিত :টাঙ্গাইলের সখীপুরে এক ইউপি চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে কাকড়াজান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম বিদ্যুৎ বিয়েটি বন্ধ করেন। বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পাওয়া মেয়েটি স্থানীয় একটি মাদ্রাসার নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। বিষয়টি নিশ্চিত করে ইউপি চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম বিদ্যুৎ বলেন, তাঁর ইউনিয়নের সাপিয়াচালা গ্রামের মৃত ইউসুফ আলীর মেয়ে মাদ্রাসাছাত্রীর (১৫) সঙ্গে পাশের ঘাটাইল উপজেলার সাগরদিঘী এলাকার এক ছেলের বিয়ের আয়োজন চলছিল। খবর পেয়ে তিনি ইউপি সদস্যদের নিয়ে ওই কনের বাড়িতে হাজির হন। পরে দুই পক্ষের অভিভাবকদের বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে বুঝিয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন । মেয়ের মা মেয়ের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেওয়ার মুচলেকা দেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসমাউল হুসনা বিয়েটি বন্ধ করায় সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ দেন। উল্লেখ্য, এক সপ্তাহের ব্যবধানে দুটি বাল্যবিবাহ অনুষ্ঠিত হওয়ায় কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসানকে গত মঙ্গলবার কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন ইউএনও। এ ঘটনার পর থেকে বাল্যবিবাহ ঠেকাতে ইউপি চেয়ারম্যানদের তৎপরতা বেড়েছে।
টাংগাইলে সখিপুরে বাল্যবিবাহ ঠেকালেন ইউপি চেয়ারম্যান August 28, 2020 মোঃ তারেক ইসলাম সিয়াম, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : বিস্তারিত :টাঙ্গাইলের সখীপুরে এক ইউপি চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে কাকড়াজান ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম বিদ্যুৎ বিয়েটি বন্ধ করেন। বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পাওয়া মেয়েটি স্থানীয় একটি মাদ্রাসার নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী। বিষয়টি নিশ্চিত করে ইউপি চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম বিদ্যুৎ বলেন, তাঁর ইউনিয়নের সাপিয়াচালা গ্রামের মৃত ইউসুফ আলীর মেয়ে মাদ্রাসাছাত্রীর (১৫) সঙ্গে পাশের ঘাটাইল উপজেলার সাগরদিঘী এলাকার এক ছেলের বিয়ের আয়োজন চলছিল। খবর পেয়ে তিনি ইউপি সদস্যদের নিয়ে ওই কনের বাড়িতে হাজির হন। পরে দুই পক্ষের অভিভাবকদের বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে বুঝিয়ে বিয়েটি বন্ধ করে দেন । মেয়ের মা মেয়ের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে না দেওয়ার মুচলেকা দেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসমাউল হুসনা বিয়েটি বন্ধ করায় সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ দেন। উল্লেখ্য, এক সপ্তাহের ব্যবধানে দুটি বাল্যবিবাহ অনুষ্ঠিত হওয়ায় কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসানকে গত মঙ্গলবার কারণ দর্শানোর নোটিশ দেন ইউএনও। এ ঘটনার পর থেকে বাল্যবিবাহ ঠেকাতে ইউপি চেয়ারম্যানদের তৎপরতা বেড়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here