নাটোরের লালপুরে গম ক্ষেতে লাশ পাওয়া ঘটনার রহস্য উন্মোচন করলেন পুলিশ সুপার,আটক-১

0
26

 বেল্লাল হোসেন বাবু নাটোর জেলা প্রতিনিধি :

ধারের মাত্র দুই হাজার টাকা আদায়ের জন্যে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় নাটোরের লালপুর উপজেলার আন্তঃজেলা মলম পার্টির সদস্য সুলতানকে(৪৮)।

সুলতান হত্যা মামলার সন্দেহভাজন আসামি ছানোয়ার হোসেন ছানাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ছানোয়ার হোসেন বাগাতিপাড়া উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের মোবারক হোসেনের ছেলে। শনিবার(৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে উক্ত ঘটনার রহস্য উন্মোচন করে এ তথ্য জানান নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা। গতকাল (৫ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় নাটোর পুলিশের একটি দল ছানাকে নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর শহরের একটি আবাসিক হোটেল থেকে গ্রেপ্তার করে। পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা জানান, গত ১৩ জানুয়ারি সকাল সাড়ে নয়টার দিকে লালপুর উপজেলার চুষাডাঙ্গা গ্রামের গম ক্ষেতের মধ্যে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতের পকেটে পাওয়া মোবাইল ফোনে কল দিয়ে যোগাযোগ করলে তার ছোট ভাই এসে মরদেহ শনাক্ত করে। পরে নিহতের স্ত্রী অজ্ঞাত নামা কয়েক জনকে আসামী করে লালপুর থানায় মামলা দায়ের করে। মামলার সূত্র ধরে তথ্য-প্রযুক্তির মাধ্যমে ও তদন্তের ধারাবাহিকতায় হত্যা মামলার ঘটনার রহস্য উদঘাটন করে এবং নীলফামারী জেলার সৈয়দপুরে অভিযান চালিয়ে ছানোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ। পুলিশ সুপার আরো জানান, নিহত সুলতান এবং তাকে হত্যার সাথে জড়িত সন্দেহভাজনরা আন্তঃজেলা মলম পার্টির সদস্য। অপর সদস্যরা টাকা ভাগাভাগির জের ধরে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে গ্রেপ্তারকৃত ছানা। পুলিশ অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here