নোয়াখালীতে ধর্ষণ ও মাদক মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার

0
13

নুরুন্নবী নবীন, নোয়াখালী জেলা প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় অভিযান চালিয়ে ধর্ষন ও মাদক মামলার পলাতক আসামী খায়রুল ইসলাম (লাল আজাদ)(৩৫) কে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)।

আটককৃত আসামি নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইবুনাল-২ এর মামলা নং-৪৫৭ ধর্ষণ মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের নেতৃত্ব দেওয়া,জমি দখল,চাঁদাবাজি, মাদক কারবার,ধর্ষণ, পতিতালয় পরিচালনা, হিজড়া দিয়ে চাঁদাবাজি সহ পাহাড় সমান অভিযোগ রয়েছে।

স্থানীয় সুত্রে জানাযায়,রাজনৈতিক সব দলের নেতাদের সাথে সংখ্যতা রেখে সে প্রকাশ্য সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে।তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ চরবাটা ইউনিয়ন,তথা সুবর্ণচর,হাতিয়া উপজেলা জনসাধারণ। তার রাজনৈতিক সংখ্যতা সব দলের সাথে হওয়ার কারণে, সে কখনো চরবাটা আ,লীগের সেক্রেটারি আলা উদ্দিনের ছায়াতে স্থান নেয়। কখনো ০২নং চরবাটার বর্তমান চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম রাজিবের হয়ে অপরাধের নেতৃত্ব দেয়। আবার দেখা যায়,সে জামাত-বিএনপির দলীয় নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সংখ্যতা গড়ে তুলেও সালিশ বাণিজ্য,অটো স্ট্যান্ড চাঁদাবাজি করে।

শনিবার বিকালে ০২নং চরবাটা ইউনিয়নের চরমজিদ ভূঞারহাট বাজার এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত খাইরুল ইসলাম আজাদ ওই এলাকার জাফর উল্ল্যাহ প্রকাশ জাফর কেরানির ছেলে।

ডিবি অফিস সূত্রে জানাযায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা পুলিশ সুপারের নির্দেশে (ডিবি) নোয়াখালী জোনের একটি দল ০২নং চরবাটার চরমজিদ এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানকালে চরজব্বর থানার একটি মাদক দ্রব্য মামলা ও নারী শিশু ট্রাইবুনাল-২ এ একটি ধর্ষণ মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী খাইরুল ইসলাম আজাদকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ আসামী গ্রেপ্তার এড়ানোর জন্য দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন স্থানে পলাতক ছিল।

ডিবি নোয়াখালী জোনের (ওসি) সাইফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ওয়ারেন্ট ছাড়াও ওই আসামির বিরুদ্ধে সুবর্ণচর, হাতিয়া থানায় আরো ২টি মামলা রয়েছে জানতে পারলাম।আটককৃত আসামিকে রোববার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here