বাঘায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাতের অন্ধকারে যুবকে হত্যার চেষ্টায় মারপিট

0
42

রাজশাহী প্রতিনিধিঃ

রাজশাহীর বাঘায় মাদক ব্যবসায়ীকে পুলিশ আটক করার জের ধরে আলাইপুর (মধ্যপাড়া) গ্রামের জালম মন্ডলের ছেলে হৃদয় (২৩) কে ফাকা নির্জন বিলে ডেকে মারপিট ও হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার( ৩১ মার্চ ) রাত্রি আনুমানিক ৮ ঘটিকার সময় বাঘা উপজেলার আলাইপুর মবার বন্দর বিলে মাদক ব্যবসায়ী সিদ্দিক, মিন্টু ও রুবেল এই মারধরের ঘটনা ঘটায়। স্থানীয় সুত্রে জানাযায়, আনুমানিক ৪ মাস আগে বাঘা থানার এস আই সইবুর রহমান মাদক ব্যবসায়ী সিদ্দিক কে ভারতীয় নিষিদ্ধ পন্য (ফেন্সিডিল) সহ আটক করে। সিদ্দিকের সাথে থাকা ভারতীয় মাদক ব্যবসায়ী পালিয়ে যায়। সিদ্দিক জেল থেকে জামিনে আসার পর থেকে বিভিন্ন ভাবে হৃদয় কে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে।

যেখানে সেখানে দেখা হলেই বলে তুই পুলিশকে তথ্যদিয়ে আমাকে আটক করিয়ে ছিস, দেখে নেব তোকে। প্রত্যক্ষদর্শী জহুরুল ও শিপনের থেকে জানাযায়, রাস্তা দিয়ে জহুরুল, শিপন ও হৃদয় আসছিলো তখন সিদ্দিক, পিতাঃ আব্দুস ছামাদ ,মিন্টু, পিতাঃআলাল ও রুবেল, পিতাঃআব্দুর রহমান সর্বসাং আলাইপুর কিছু গোপনীয় কথা আছে বলে আলাইপুর মৌজার মবার বন্দর বিলে ফাকা স্থানে নিয়ে যায়। আমাদের দূরে দাড়াতে বলে, আমরা দূরে দাড়িয়ে ছিলাম। বেশ কিছু সময় পার হয়ে যাওয়ার পর টর্স লাইট জ্বালিয়ে দেখি ওরা সেখানে নেই তখন আমরা দুইজন খোজাখুজি শুরু করি এবং হৃদয়ের চিৎকার শুনে সেখানে এগিয়ে যায়। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি রুবেল মন্ডল বলেন, ঘটনার দিন আমি চাপাইনবয়াবগঞ্জে আমার শশুর বাড়িতে ছিলাম। তবে ঘটনা সম্পর্কে মোবাইল ফোনে এবং লোক মুখে শুনেছি।

এ ব্যাপারে মুঠো ফোনে জানতে চাইলে মাদক কারবারী সিদ্দিক বলেন, ভুক্তভোগী হৃদয়সহ তার পিতা এবং ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত কাউকে তিনি চিনেন না। উল্লেখ্য, সিদ্দিক স্থানীয় সুকচানের ছেলে সুজন হত্যার আসামী। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক মাদক মামলা। বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আব্দুল বারী বলেন, ঘটনার রাতে ৯৯৯ এ কল আসলে তৎক্ষনাৎ পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে গতকাল একটি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে অইনি ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here