ময়মনসিংহের নান্দাইলে মেয়ের জন‍‍্য বাবাকে নির্যাতন।

0
13

তাপস কর,ময়মনসিংহ প্রতিনিধি।
ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল উপজেলার পালাহার গ্রামে গার্মেন্টস কর্মী কিশোরী মেয়েকে (১৬) যৌন নিপীড়নের হাত থেকে বাঁচাতে গিয়ে বখাটের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এক বাবা (৪৫)। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযুক্ত রবিউল আউয়াল হৃদয়কে (১৮) গ্রেফতার করে আজ সোমবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মামলা দিয়ে আদালতে পাঠিয়েছে।
নিপীড়নের শিকার কিশোরির বাবা জানান, তাঁর মেয়ে নান্দাইলের চন্ডীপাশা এলাকায় অবস্থিত ‘টার্গেট নিট ফাইন’ নামে একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করে। প্রতিদিন কারখানায় যাওয়া আসার পথে হৃদয় কয়েকজন সহযোগী নিয়ে মেয়েকে উত্ত্যক্ত করত। মেয়ের মুখে উত্ত্যক্তের কথা শোনার পর প্রায় সময় তিনি পাহারা দিয়ে মেয়েকে পাকা সড়ক পর্যন্ত এগিয়ে দিতেন। রবিবার কারখানা ছুটির পর রাত ৯টার দিকে সহকর্মী খালাকে সাথে নিয়ে বাড়ি ফিরার পথে আবুল কালামের পুত্র হৃদয় পথরোধ করে। এ সময় তার ওপর যৌন নিপীড়ন শুরু করে। এক পর্যায়ে ঠেনে সিএনজিতে তোলার চেষ্টা করে। তখন চিৎকার শুনে মেয়েকে উদ্ধারের চেষ্টা করলে তাঁকে মারধর করে পড়নের পোশাক ছিঁড়ে ফেলা হয়।
ওই সময় হৃদয়ের হাতে লাঞ্চিত হয়েছেন পালাহার গ্রামের বাসিন্দা রিয়াজ উদ্দিন। তিনি জানান, ঘটনার সময় চিৎকার শুনে এগিয়ে এসেছিলেন। তখন প্রতিবাদ করতে গিয়ে তিনিও লাঞ্চিত হয়েছেন। এ ঘটনার পর সেখানে উপস্থিত ছিলেন এমন ২০/২৫ জন বলেন, ঘটনাটিকে এক শ্রেণির সালিশকারী মীমাংসা করার কথা বলে অভিযুক্তকে ছাড়িয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালায়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে অভিযুক্তকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। নান্দাইল থানার ওসি মনসুর আহম্মদ বলেন, নিপীড়নকারীকে রাতেই গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার সকালে মেয়ের বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছে। অভিযুক্তকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here