রিমান্ডে আনলে বেরিয়ে আসবে মূল রহস্য শ্যাম প্রসাদ বনিকের ফাঁসীর দাবী এলাকাবাসীর।

0
12

মো করিমুল হক, গুইমারা খাগড়াছড়িঃ
বিস্তারিতঃ খাগড়াছড়ির গুইমারায়’ আলোচিত ধর্ষণ মামলার আসামী শ্যাম প্রসাদ বণিককে অভিযান চালিয়ে আটক করেছে গুইমারা থানা পুলিশ। ইতিপূর্বে অভিযান চালিয়ে হাটহাজারী উপজেলার কাটিরহাট এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়। আসামী রিমান্ডে আনলে মা ও মেয়ের মূল রহস্য বের হয়ে আসবে। পুলিশ রিমান্ডের আবেদন করেছে বলে জানাগেছে কিন্তু এখনও হয়নিন রিমান্ড শুনানি তাই জনমনে নানা প্রশ্নের জন্ম নিয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই আল আমিনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন রিমান্ড চেয়েছি আদালত শুনানি নিয়ে আদেশ দিলে আসামীকে রিমান্ডে আনা হবে। উল্লেখ্য যে এখনো নাবালিকা কণ্যা সন্তান ধর্ষণের প্রধান সহযোগি মা শাহেদা আক্তার ধরা ছোয়ার বাহিরে রয়েছে।

আলোচিত এই ধর্ষণ মামলার আসামী শ্যাম প্রসাদ বণিক প্রবাসী ইঞ্জিনিয়ার জাহাঙ্গীর আলম বিদেশ থাকার সুবাদে তার স্ত্রীকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে অনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। পরে তা জানাজানি হয়ে গেলে সে ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে নিজের মেয়েকে কথিত প্রেমিক শ্যাম প্রসাদ বণিককে ধর্ষণের সহায়তা করার অভিযোগ করেন ঐ মেয়ের পিতা। পরে গত ২৬ জুলাই শ্যাম প্রসাদ বণিককের বিচার দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেন জাহাঙ্গীর আলম। সংবাদটি বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচারের পর আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠে। পর দিন গুইমারা থানায় লিখিত অভিযোগ তদন্তের পর রূপ নেয় মামলায়। সে মামলায় ইতিপূর্বে শ্যাম প্রসাদ বণিককে যাহার মামলা নং- ০১/২০২০, তারিখ: ২৭/০৭/২০, নারী ও শিশু আইনে ৯(১)২০০০, জিআর-২৪৭/২০২০। আটক শ্যাম প্রশাদ বনিক বর্তমানে জেল হাজতে রয়েছ।তাকে রিমান্ডে আনলে মা ও মেয়ের আসল রহস্য বেরিয়ে আসবে।

এলাকাবাসীর দাবী আলোচিত ধর্ষণ মামলার আসামী শ্যাম প্রসাদ বণিক অপকর্মের ভিডিও ধারণ করা ঘর (গুইমারা ডাক্তার টিলায়) ও শ্যাম প্রসাদের বাড়ীর পাশে জাহাঙ্গীরের বড়ীটি সীলগালা করা প্রয়োজন। কেননা এই ঘর ২টিতে নানা অপকর্ম ও নোংরা কাজের আলামত রয়েছে। তার সাথে ধর্ষণকারীর ফাসী ও জড়িতদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানান এলাকাবাসী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here