লালপুরে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতিকে পদ থেকে অব্যাহতি

1
220

স্টাফ রিপোর্টার :

নাটোরের লালপুর উপজেলার ২নং ঈশ্বরদী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আমিনুল ইসলাম জয়কে সভাপতির পদ থেকে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।

দলীয় সূত্রে জানাযায়, শনিবার সন্ধায় উপজেলার লক্ষীপুর বাজার চত্বরে ওই ইউনিয়নের কার্য নির্বাহী সভা শেষে তাকে ওই পদ থেকে অব্যাহতি দেয়ার ঘোষনা দেন লালপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও কার্য নির্বাহী সভার প্রধান অতিথি আফতাব হোসেন ঝুলফু।

এর আগে বিকেলে ওই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সভায় সর্বসম্মতি ক্রমে আমিনুল ইসলাম জয় কে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে সভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি দেয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। একই সাথে ওই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ইলিয়াস মল্লিককে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব প্রদান করা হয়। ঈশ্বরদী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আমজাদ হোসেনের সভাপতিত্বে কার্য নির্বাহী সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, লালপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইসাহাক আলী। এসময় অনান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আনিসুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম স্বপন, ঈশ্বরদী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি মিজানুর রহমান কালা, ঈশ্বরদী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিম রেজা সহ ওই ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি- সাধারণ সম্পাদকগণ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন লালপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক কাজী আছিয়া জয়নুল বেনু, এবি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ প্রমূখ। দলীয় পদ থেকে অব্যাহতির বিষয়ে ঈশ্বরদী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম জয় জানান, লালপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে দলীয় নিয়ম বর্হিভূত ভাবে আমাকে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি পদ থেকে অব্যাহিত দিয়েছে বলে শুনেছি, আমি এর প্রতিবাদ জানাচ্ছি। ওই সভায় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কমিটির বেশীর ভাগ নেতা উপস্থিত ছিলোনা বলে দাবী করেন তিনি।

1 COMMENT

  1. ২ নং ঈশ্বরদী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এর কর্মকাণ্ডের ওপর নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করার অনুরোধ জানাচ্ছি, সেই সাথে দায়িত্ব গ্রহনের পরবর্তী কালীন সরকারি সকল অনুদান, করোনা কালীন অনুদান ইউনিয়ন এর জনসাধারণ দের মাঝে বন্টন হয়েছে কি না তা জনগণ এর কাছ থেকে প্রত্যক্ষ ভাবে পর্যবেক্ষন করে জানার অনুরোধ করছি, সেই সাথে সরকারি অনুদান অত্মস্ব্যাৎ করে কি পরিমাণ ব্যক্তিগত সম্পদ তৈরি করেছে তা দুদক কমিশন থেকে তদন্ত করার জন্য অনুরোধ রইলো।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here