জনতা বাজার বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও আশ্রয় কেন্দ্র এখন নদী গর্ভে বিলিন

0
13

রিয়াজ উদ্দিন রুবেল নোয়াখালী প্রতিনিধি :

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার ০২ নং চানন্দী ইউনিয়নে প্রতিদিন মেঘনার ভাঙ্গনে বিলিন হয়ে যাচ্ছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান,বসতবাড়ি,গাছপালা,দোকানপাটসহ ফসলী জমি। এরই মধ্যে নদীগর্ভে বিলিন হয়ে গেছে জনতা বাজার বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও আশ্রয় কেন্দ্রটি।

মেঘনার ভাঙ্গনে অনেকে হারিয়েছে নিজেদের শেষ আশ্রয়টুকু। নদীগর্ভে সবকিছু হারিয়ে নিঃশ্ব মেঘনা পাড়ের অনেক পরিবার। চোখের সামনে হারিয়ে যেতে দেখেছেন নিজেদের শেষ সম্ভলটুকু। প্রতিদিন মেঘনার এমন সর্বনাশা ভাঙ্গনে আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন সেখানকার বসবাসরত মানুষেরা। স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, প্রতিদিন মেঘনার এমন ভাঙ্গনে অনেকে তাদের বাড়িঘর,গাছপালা,দোকানপাট, ফসলি জমি হারিয়েছেন। বসতবাড়ি নদীগর্ভে হারিয়ে অনেকে আশ্রয় নিয়েছে ভিবিন্ন জায়গায়। আবার অনেকে ঝুঁকি নিয়ে বসবাস করছে মেঘনা পাড়ে।

সর্বনাশা মেঘনার ভাঙ্গনে জনতা বাজারের অনেক ব্যবসায়ী তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছে, আবার অনেকে নদী গর্ভে হারিয়েছে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটিও। স্থানীয়দের মধ্যে অনেকে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন প্রতি বছর মেঘনার ভাঙ্গনে হাজার হাজার একর জমি বিলিন হয়ে যাচ্ছে নদীগর্ভে,তবুও স্থায়ী কোনো পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছেনা। তাই তাদের দাবি সরকার অতিদ্রুত নদী ভাঙ্গনে স্থায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। অস্থায়ী বেড়িবাঁধ না করে স্থায়ী ব্লক ব্যবহার করে নদী ভাঙ্গন রোধ করবে। এখন থেকে যদি স্থায়ী কোনো পদক্ষেপ না নেয়া হয় তাহলে নদীগর্ভে ০২ নং চানন্দী ইউনিয়ন বিলিন হয়ে যাওয়ার আশংঙ্খা করছে স্থানীয়রা। যেভাবে প্রতিদিন মেঘনা ভাঙ্গছে তাতে আগামীতে তা ভয়াবহ হবে বলেও আশংঙ্খা তাদের। তাই তাদের দাবি সরকার অতি দ্রুত স্থায়ী ব্লক দিয়ে এই নদী ভাঙ্গন রোধ করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here