তাহিরপুরে ছেলে সন্তানের মা হলো মানসিক ভারসাম্যহীন পাগলী

0
8

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা সদরের বাজারে দীর্ঘদিন ধরে অবস্থানকৃত এক মানসিক প্রতিবন্ধী পাগলী একটি ফুটফুটে ছেলে সন্তানের মা হলেও বাবা হয় নি কেউ।

এ নিয়ে উপজেলা জুড়ে আলোচনা সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। তবে ঐ মানসিক প্রতিবন্ধী পাগলীর সম্পর্কে কোন তথ্যই পাওয়া যায় নি। আজ সোমবার (৩ মে) সকাল ১০টায় তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স একটি ফুটফুটে ছেলে সন্তানের জন্ম দিয়েছে ঐ মানসিক প্রতিবন্ধী। তাহিরপুর বাজার কমিটি ও স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, মানসিক প্রতিবন্ধী এক পাগলী উপজেলার সদর ইউনিয়নের তাহিরপুর বাজারে অন্তঃসত্তা হয়ে চার মাস পূর্বে হঠাৎ করে বাজারে অবস্থান শুরু করে।

বাজারের যেখানে ইচ্ছে হয় সে সেখানেই অবস্থান করে। আর বাজারে আগত মানুষজন ও হোটেলগুলো থেকে যে খাবার দিত তাই খেয়ে সে চলতো। এদিকে দিন দিন তার শারীরিক অবস্থার পরিবর্তন হতে থাকলে স্থানীয় সবার নজরে পরে। ফলে ঐ মানুষিক প্রতিবন্ধী পাগলীর সন্তান ভূমিষ্টের বিষয়টি নিয়ে বাজার ব্যবসায়ীরা চিন্তিত হয়ে পড়েন। আজ সকালে পাগলীর প্রসব ব্যথা উঠলে তাকে বাজার কমিটির দায়িত্বশীল লোকজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে ফুটফুটে একটি ছেলে সন্তান ভূমিষ্ট হয়। বর্তমানে ঐ পাগলী ও ভূমিষ্ট হওয়া বাচ্চা তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে । সদ্য ভূমিষ্ট শিশুটি ও মানসিক প্রতিবন্ধী পাগলী সুস্থ অবস্থায় রয়েছে বলে জানান হাসপাতালে কতব্যর্রত চিকিৎসকগন। বাচ্চা প্রসব হওয়ার পর থেকে ঐ পাগলীকে স্থানীয় এক মহিলা নিজ দায়িত্বে শিশু বাচ্চাকে সেবাযত্ন ও দেখভাল করছেন। তিনি এই শিশু বাচ্চাকে নিজ সন্তানের মত লালন পালন করতে দায়িত্ব নিতে চান। তিনি স্থানীয় লোকজন ও প্রশাসনের কাছে দায়িত্ব নেয়ার বিষয়টি দাবী জানান। বর্তমানে বাচ্চাটি দায়িত্ব নিতে ইচ্ছুক মহিলার কাছে রয়েছে।

তাহিরপুর বাজার বনিক সমিতির সাধারন সম্পাদক এরশাদ আলী জানান, মানসিক প্রতিবন্ধী পাগলী বাজারে অন্তঃসত্তা হয়ে চার মাস পূর্বে হঠাৎ করেই কোথা থেকে এসে বাজারে অবস্থান শুরু করে। আজ সকালে প্রসব ব্যথা উঠলে তাকে লোকজন নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই। পরে একটি ছেলে সন্তান ভূমিষ্ট হয়। তাহিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুমন চন্দ্র বর্মন জানান, সদ্য ভূমিষ্ট শিশু ও মা ভাল আছে কোন সমস্যা নেই। মা ও শিশুটি এখন আমাদের কাছে পর্যবেক্ষনে রয়েছে। পরবর্তীতে প্রশাসন যে ব্যবস্থা নেয় সে ভাবেই পদক্ষেপ নেয়া হবে। তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুল লতিফ তরফদার এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বাচ্চাটিকে সুস্থ রাখতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here