নাগরপুরে লকডাউন না মানায় পথচারীসহ ১১ দোকানীকে জরিমানা

0
43

নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ-

দ্বিতীয় দফা করোনা সংক্রমণে জনগনের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিতে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসনের সিদ্বান্তের আলোকে জরুরী খাদ্যপন্য ও ঔষধের দোকান ছাড়া সব ধরণের দোকানপাট বন্ধের নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসনের এই আদেশ মোতাবেক সব ধরণের দোকানপাট বন্ধে মাঠ তদারকিতে নেমেছেন নাগরপুর উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ। ইতোমধ্যে নাগরপুর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের মার্কেট মালিক ও ব্যবসায়ী সমিতির সঙ্গে জরুরী বৈঠক করে খাদ্যপন্য কাঁচাবাজার ও ঔষধের দোকান ছাড়া অন্যসব দোকান বন্ধ রাখার সিন্ধান্ত গ্রহন করা হয়। নাগরপুর উপজেলা প্রশাসনের সিন্ধান্তের আলোকে সরকারি আদেশ অমান্য করে দোকান খোলা রেখে ব্যবসা-বাণিজ্য অব্যাহত রাখায় সোমবার সকালে টাঙ্গাইলের নাগরপুর সদর বাজারে অভিযান চালিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সিফাত-ই-জাহান।অভিযানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সিফাত-ই-জাহান বলেন, সরকার সোমবার ভোর ছয়টা থেকে ১১ এপ্রিল রাত বারোটা পর্যন্ত এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষনা করেছে।

নাগরপুরে সঠিক ভাবে যেন লকডাউন পালিত হয় সেই উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও নাগরপুর থানা পুলিশের পক্ষ থেকে আমরা মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করি। বেশির ভাগ দোকানী সরকারের আদেশ মেনে চলছে। কিছু কিছু দোকানী আদেশ অম্যান্য করে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা রাখায় ও মাস্ক ব্যবহার না করায় তাদের কে জরিমানা করা হয়। এসময় তিনি যেসব লোক অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বাজারে এসেছেন তাদের প্রাথমিকভাবে সতর্ক করে দেন। এছাড়া যারা শ্রমের তাগিদে ঘর থেকে মাস্ক ছাড়া বের হয়েছেন তাদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন। লকডাউন যথাযথ ভাবে মেনে চলতে সকলকে ঘরে থাকার আহবান জানান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামীলীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যান বিষয়ক সম্পাদক মো. উজ্জল মোল্লা, নাগরপুর থানার পরিদর্শক ওসি তদন্ত মো. বাহালুল খান বাহার, এ এস আই মো. রাসেল, নাগরপুর বাজার বনিক সমিতির আহ্বায়ক মো.হাবিবুর রহমান লিটন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here