বঙ্গবন্ধু ইসলামী ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেছেন- পলক

0
12
 বেল্লাল হোসেন বাবু, নাটোর জেলা প্রতিনিধি :
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইসিটি প্ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি বলেছেন, সচ্ছতা ও জবাবদিহীতার সাথে সরকারের দান অনুদান আমরা পৌছে দিয়েছি।
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ইসলামী ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেছেন, ইজতেমায় জমি দান করেছেন। মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। বর্তমানে ২০ লক্ষ শিক্ষার্থী কওমীতে পড়ালেখার সুযোগ পাচ্ছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা কওমী মাদ্রাসাকে স্বীকৃত দিয়ে মহৎ কাজ করেছেন। যা বিগত দিনে কোনো সরকার করেনি। অথচ একটি চক্র মাদ্রাসার ছাত্রকে ভুল পথে পরিচালিত করছে। পলক আরো বলেন, বিগত ১২ বছরে মসজিদ, মাদ্রাসার সংখ্যা বেড়েছে। সরকার মসজিদ মাদ্রাসার উন্নয়ন করেছে। বিগত ১২ বছরে মসজিদ, মাদ্রাসার যে উন্নয়ন হয়েছে তা ৫০ বছরে ও হয়নি। আমাদের মুখোশধারীদের চিনতে হবে, কারা মসজিদের উন্নয়ন করছে তা পরিস্কার। ইসলামের উন্নয়নের জন্য বঙ্গবন্ধু ও তাঁর কন্যা সবচেয়ে বেশি কাজ করছে। যা বিগত কোনো সরকার করেনি। কওমী মাদ্রাসার এতিমতদের জন্য বঙ্গবন্ধু কন্যার অন্তর কাঁদে।
তাই তিনি কওমী মাদ্রাসার উন্নয়নে ভূমিকা রেখে চলেছেন। সত্য ও মিথ্যার পার্থক্য তুলে ধরতে হবে। তিনি কোরআন ও হাদিসের আলোকে ইমামদের মসজিদে বয়ান করার আহবান জানান। সবাইকে দেশ রক্ষায় নৈতিক দায়িত্ব পালন করতে হবে। আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি আরো বলেন, মালয়েশিয়ারর মত উন্নত দেশ গড়তে আমাদের সকল অপশক্তির ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে হবে। ২০৪১ সাল নাগাদ উন্নত বাংলাদেশ গড়তে হবে।। আমরা যদি ভুল করি ইরাকের মত পরিনিত হবে। নেতৃত্বে ভুলের খেসারত সিরিয়া, আফগানিস্তান, পাকিস্তান দিচ্ছে। ষড়যন্ত্র এবং ভুলের কারনে অনেক উন্নত দেশ আজ বিপর্যয়ে সম্মুখীন। দেশি বিদেশি ষড়যন্ত্র এবং বিশৃংখলা প্রতিহত করতে আমাদের সজাগ থাকতে হবে। এসময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুস্থতার জন্য দোআ কামনা করেন তিনি। তিনি আরো বলেন, কোনো বরাদ্দের দুর্নীতি, অনিয়ম করতে দেয়া হবে না।
গ্রামে কিংবা সমাজে কোনো অসংগতি, বিশৃংখলা হলে কিংবা কোনো অনিয়ম হলে তাঁকে মেসেজ অথবা ফোন করার অনুরোধ জানান। গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টিআর – নগদ অর্থ) কর্মসূচির আওতায় ২০২০/২১ অর্থ বছরে ধর্মীয় শিক্ষা ও প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে আর্থিক অনুদানের ডিও ৩৬ টি প্রতিষ্ঠানে ১৬ লাখ ৬৫ হাজার টাকা ও পৌর এলাকার ৭০ টি মসজিদের ইমাম মোয়াজ্জিনদের মাঝে ঈদ শুভেচ্ছা বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম সামিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন, সহকারী কমিশনার ভূমি রকিবুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন, প্রতিমন্ত্রীর এপিএস রনজিৎ কুমার প্রমুখ। পরে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি উপজেলার ৩১ টি শ্রমিক সংগঠনের মাঝে ঈদ শুভেচ্ছা উপহার বিতরন করেন। উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ও কাউন্সিলর জাহাঙ্গির আলমের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, সিংড়া পৌরসভার মেয়র মো: জান্নাতুল ফেরদৌস। এসময় শ্রমিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here