ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে রাস্তা বন্ধ করে ঘর নির্মাণের অভিযোগ

0
38

মোঃ নাহিদ সিকদার,ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধি :-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায় শতবর্ষী পুরাতন রাস্তা বন্ধ করে টিনসেড ঘর নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে, এতে জনদুর্ভোগ চরমে। শনিবার ১৫ মে ২০২১ ইং সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সিঙ্গারবিল ইউপির শ্রীপুর গ্রামের পশ্চিম দক্ষিণ ভুইয়া বাড়ির মৃত জয়দুল হোসেন ভুইয়ার ছেলে ও শ্রীপুর আলিয়া মাদ্রসার দপ্তরি হোসেন ভুইয়া (৫০) প্রায় ১৫০ বছরের পুরাতন জনসাধারণের চলাচলের একমাত্র রাস্তাটির একপার্শ্বে রাস্তা জুড়ে নতুন টিনসেড ঘর নির্মাণ ও সাইডে টিনের বেড়া নির্মাণ করে রাস্তা বন্ধ করে সে জায়গা দখলে নেয়।

এতেই তিনি খান্ত হননি প্রায় ৫ ফুট গভীর গর্তখুড়ে রাস্তার মাটি অন্যত্র সরিয়ে নেয়,¬ এতে জনসাধারণের চলাচলের জনদুর্ভোগ চরমে উঠে। সাংবাদিকদের উপস্থিতি টের পেয়ে গ্রামের শত শত জনতা এসে জড়ো হয়, হোসেন ভূইয়া রাস্তা বন্ধ করে জায়গা দখলের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার, সমালোচনা, দু:খ,ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকে। এ বিষয়ে হোসেন ভুইয়ার নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, এ জায়গা আমার, রাস্তার জায়গা আরো পূর্ব দিক দিয়ে, আমি আমার জায়গায় ঘর নির্মাণ করেছি। গ্রামের প্রবীণ ব্যক্তিত্ব আব্দুল কাদির ভ‚ইয়া (৯৫) জানান, ঐতিহ্যবাহী ভ‚ইয়া গোষ্টির রয়েছে অগাধ সম্পদ, সীমান্তবর্তী বিজয়নগর ও আখাউরা উপজেলার মূল সড়ক থেকে পশ্চিমে বিশাল হাওরে যাওয়ার রাস্তা এটি। যেখানে রয়েছে শ্রীপুর গ্রামের ভ‚ইয়া গোষ্টির বহু ধানি জমি, রয়েছে মাছ চাষের জন্য বড়বড় দিঘি। গ্রামের মানুষ এ রাস্তা ধরেই দীর্ঘ দিন যাবৎ যাতায়াত করে, প্রায় ১৫০ বছরের অধিক। পুরানো এ রাস্তা উপজেলা চেয়ারম্যান নাছিমা মুকাই আলী সংস্কারের উদ্দ্যোগ নেন। মূল সড়ক থেকে ঢালাই করে পশ্চিমে হোসেন ভ‚ইয়ার বাড়ির সামনে পাকা করণের কাজ করা কালে, বাধা দেয় হোসেন ভ‚ইয়া, এতে প্রায় ২ মাস যাবৎ রাস্তার উন্নয়ন কাজ বন্ধ। বিগত ২/৩ মাসে গ্রাম্য গণ্যমান্য সাহেব সর্দার নিয়ে ৪/৫ বার সালিশ বৈঠক অনুষ্টিত হয়, এক অদৃশ্য কাল শক্তির কারণে হোসেন ভুইয়া সালিশ মেনে ও অমান্য করতে থাকে।

এমন কি জায়গা সম্পদের ম্যাপ দেখে আমিন দ্বারা রাস্তার জায়গা নির্ধারণ করে গ্রাম্য সালিশ কার গণ ছোট ছোট খুঁটি বসালেও তা তিনি(হোসেন ভ‚ইয়া) পরক্ষণে মানছেন না। বীরদর্পে প্রকাশ্যে খুঁটি গুলো তুলে ফেলে দিচ্ছে। শুক্রবার ১৪ মে ২০২১ ইং সমস্ত রাস্তা জুড়ে টিনসেড ঘর উঠায়। প্রায় ৫ ফুট গর্ত খুড়ে রাস্তার মাটি অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যায়। এহেন পরিস্থিতিতে এলাকার বর্তমান মেম্বার মো:জালাল,চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম ভ‚ইয়া,সরকার মেম্বার(প্রাক্তন),হারুন মেম্বার(প্রাক্তন),স্বনাম ধন্য বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব সালিশ কার মামুনুর রশিদ সহ আশেপাশের বিভিন্ন গ্রামের সাহেব সরদার রাস্তাটি বন্ধ না করার জন্য অনুরোধ করেন। কিন্তু তিনি কর্ণপাত করেন নি। হোসেন ভ‚ইয়ার বাড়ির পেছনে রয়েছে প্রায় ২০০ লোকের বসবাস। অনেক শিশু ,বৃদ্ধ, গর্ভবতী, অসুস্থ রোগী , ছাত্র – ছাত্রী সহ সকল জনগণের চলাচলের যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা এইটি। বর্তমানে এই রাস্তায় চলা চলকারী তাহারা দুর্বিষহ জীবনীপাত করছে।

আরো জানান গ্রামের বিশিষ্ট ব্যক্তিত্ব মো: আবুল খায়ের মিয়া, সে প্রথম থেকেই এ বিষয়টি সুরাহা করার চেষ্টা করছে, কিন্তু হোসেন ভ‚ইয়া তাকে প্রতিপক্ষ মনে করে আবুল খায়েরের সাথে দৃষ্টতাপূর্ণ আচরণ করেন। গ্রামের লোকেরা রাস্তা খুলে দেওয়ার জন্য গেলে, হোসেন ভ‚ইয়া পেছনে থেকে তার ৫ মেয়ে ও স্ত্রীকে লেলিয়ে দিচ্ছে ঝগড়ার উদ্দেশ্যে, বিবশ্র হয়ে নারী নির্যাতন মিথ্যা মামলা করবেন বলে হুমকি দিচ্ছে। তাহার মেয়ে ও স্ত্রী বিভিন্ন জঘন্য মিথ্যা মামলার ভয়ে কেহ কিছু বলতে সাহস পাচ্ছেনা। গ্রামবাসীর দাবি, রাস্তা অবরুদ্ধের কারণে প্রায় ২০০ জন মানুষ বাড়ি থেকে রেড় হতে পারছেন না। প্রায় ১৫০ বছরের পুরানো রাস্তা, ভ‚মি খেকোর কবল ও দখল থেকে রাস্তাটি উদ্ধার করে, জন সাধারণের চলাচলের উপযোগী রাস্তা তৈরী করিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট জোড় দাবী জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here