মনপুরা উপজেলা ছাত্রদলের অাহবায়ক কমিটি গঠন, একাংশের প্রত্যাখ্যান।

0
23

সোহান সোহাগ মনপুরা প্রতিনিধিঃ-

ভোলা জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মোঃ নূর আলম এবং সাধারণ সম্পাদক মোঃ আল-আমীন হাওলাদার টাকা খেয়ে কমিটি দেওয়ায় মনপুরা উপজেলা শাখা এবং কলেজ শাখা থেকে গণস্বাক্ষরের মাধ্যমে প্রায় ৮০০ শত ছাত্রদল নেতা কর্মি এই কমিটি প্রত্যাখ্যান। হঠাৎ করেই মনপুরা উপজেলা এবং মনপুরা সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রদলের অাহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। এদের অনেকে অাছে যারা কমিটি গঠনের কথা জানেন না। সূত্রের দাবি জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক অর্থের বিনিময়ে কাউকে না জানিয়ে অযোগ্যদের দিয়ে কমিটি গঠন করেছে। অাহবায়ক কমিটির কয়েক জনের সাথে কথা বলে জানা যায় তারাও কমিটি গঠনের বিষয়ে কিছুই জানেনা। কমিটি গঠনের কথা শুনে তারা নিজেরা-ও এই কমিটি প্রত্যাখ্যান করেছে। মনপুরা ইউনিয়ন শাখা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ মামুন মিয়া বলেন কারা কখন কিভাবে কমিটি গঠন করেছে তা অামিও জানিনা। অামাকে না জানিয়ে কমিটির যুগ্ন অাহবায়ক করেছে এবং অামি তা সাথে সাথে প্রত্যাখ্যান করেছি। মনপুরা সরকারি কলেজে শাখার সাবেক সভাপতি মেহেদী হাসান রুবেল এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ বেল্লাল জানান সেও জানেনা কমিটি গঠনের বিষয়ে এমনকি তাদেরকে বর্তমান কমিটিতেও রাখা হয়নি। ঘোষিত কমিটির অনেকের সাথে কথা বলে জানা গেছে জেলা ছাত্রদল অর্থের বিনিময়ে দায়সারাভাবে কমিটি গঠন করে দিয়েছে। বর্তমান বিরোধী দলে থেকে দল অনেকটা ভঙ্গুর অবস্থায় অাছে। এমতাবস্থায় ত্যাগী এবং দলপ্রেমীদেরকে কমিটিতে রাখা দরকার ছিলো বলে মনে করেন স্থানীয় সিনিয়র নেতৃবৃন্দে। বর্তমান কমিটির সদস্য নাঈমুর রহমান রাকিব জানান কমিটি গঠন হবে জেনেছি কিন্তু কবে গঠন হবে তা জানিনা অামাকে না জানিয়ে কমিটির সদস্য করা হয়েছে আমি সাথে সাথে প্রত্যাখ্যান করেছি। মনপুরা উপজেলা ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক নূরে অালম শামীম বলেন কমিটি গঠন বিষয়ে অামি কিছুই জানিনা। ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পারলাম কমিটি গঠন হয়েছে। কমিটিতে এমন কিছু ছাত্রদের পদাদিকার দেয়া হয়েছে যাদের দল পরিচালনা করার মতো যোগ্যতা নেই। অতীতে তাদেরকে মিছিল মিটিং দেখা যায়নি এমনকি তারা অতীতে কোনো কমিটিতেও ছিলোনা। উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি শাহজালাল অালামিনের কাছে কমিটির ব্যপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন অামি বর্তমানে ঢাকায় অবস্থান করছি। অার কমিটির সম্পর্কে অামিও তেমন কিছু জানিনা। কমিটির কিছু সদস্যের সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন কমিটি গঠনে সম্ভাবত এসএসসি সাল এবং বিবাহিত অবিবাহিত বিষয়টা দেখা হয়েছে। এ জন্য অনেক ত্যাগী এবং পুরনো ছাত্র কমিটি থেকে বঞ্চিত হয়েছে। তবে যাদেরকে দিয়ে কমিটি দেওয়া হয়েছে তাঁরা অনেকেই ছাত্রলীগের সাথে সংযুক্ত। কমিটির বিষয়ে মনপুরা উপজেলা বিএনপির সভাপতি সামছুদ্দিন বাচ্চু চৌধুরী বলেন এই কমিটি অাওয়ামীপন্থি কমিটি। অামরা মনপুরা থেকে যেই কমিটি লিস্ট পাঠিয়েছি ভোলা জেলাতে তা অনুমোদন না দিয়ে জেলা ছাত্রদল ছাত্রলীগের কিছু কর্মী দিয়ে কমিটি গঠন করে অনুমোদন দিয়েছে। অামরা এই কমিটি প্রত্যাখ্যান করেছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here