আদালতের নির্দেশ অমান্য করে দোয়ারাবাজারে জমি থেকে ধান লুটের অভিযোগ

0
70
স্টাফ রিপোর্টার এনামুল কবির মুন্নাঃ
আদালতের নির্দেশ অমান্য করে সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলা সুরমা ইউনিয়নের আলীপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধার সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে শহিদুল ইসলামের কাছে ভুয়া মালিকানা দাবি করে ফসলি জমির ধান লুটের অভিযোগ উঠেছে উপজেলার এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে।
ভুক্তভোগী শহিদুল ইসলাম উপজেলা সুরমা ইউনিয়নের আলীপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা সিদ্দিকুর রহমানের পুত্র। শহিদুল ইসলাম জানান উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের ভুজনা মৌজার জে এল নং এস-৯১ বি,এস ৮৪ খতিয়ান এস,এস-২৯ ডিপি৭১২ নামজারী-৬৭২। দাগ এস,এ-৫৪, বি,এস-৬৯ শ্রেণী বোরো ২৮ শতক জমি দলিল সূত্রে তারা মালিক। এই জমি নিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে মামলা চলছে। মামলা বিচারাধীন থাকা অবস্থায় হাওরে বোরোধান জোরপূর্বক লুটপাট করে কেটে নিয়ে যায় উপজেলার মান্নারগাওঁ ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামের মৃত আয়না মিয়ার ছেলে আজমান মিয়া,ও আজমান মিয়ার ছেলে বোরহান উদ্দিন,ফয়েজ উদ্দিন,শফিক মিয়া,আলীম উদ্দিন গংরা।
আজমান মিয়া ও তার লোকজন যাতে এই বিরোধপূর্ণ জমির বোরোধান না কাটতে পারেন সে জন্য শহিদুল ইসলাম সুনামগঞ্জ ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা করেন। যাহা ফৌজদারী ২১৪/২০২১ এরপর আদালত বিরোধপূর্ণ জমির ধান কাটার ওপর ১৪৪ ধারা জারি এবং শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখর জন্য দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জকে নিদের্শ দেন। এব্যাপারে মামলার বাদী শহিদুল ইসলাম বলেন, মঙ্গলবার (২৭ এপ্রিল) সকাল ৮ টায় আদালতের ১৪৪ ধারা অমান্য করে আজমান মিয়া ও তার লোকজন দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সন্ত্রাসী কায়দায় আমার জমিনের বোরোধান কেটে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে বোরহান উদ্দিনের মোবাইল বাবার ফোন করেও বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। এ বিষয়ে দোয়ারাবাজার থানার মামলার তদন্তকারী অফিসার পুলিশের (এসআই) কামাল হোসেন বলেন আমি অফিসার ইনচার্জের নির্দেশে একটি নোটিশ জারী করে এসেছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here