চিকিৎসা পদ্ধতিতে করোনার নতুন গাইডলাইন প্রকাশ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

0
14

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯।গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়।

ইউরোপের বিভিন্ন দেশে ধরা পড়েছে করোনার নতুন ধরন।এখনো স্বাভাবিক হয়নি করোনা পরিস্থিতি। প্রতিদিনই বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এ অবস্থায় করোনা আক্রান্ত রোগীর জন্য নতুন গাইডলাইন প্রকাশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

শনিবার (৩০ জানুয়ারি) বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনার জন্য নতুন গাইডলাইন প্রকাশ করেছে। এই গাইডলাইনে মূলত করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা পদ্ধতি বলা হয়েছে। করোনা থেকে সেরে ওঠার পরেও কী করতে হবে, সেই কথাও বলা হয়েছে এই নতুন গাইডলাইনে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, করোনা আক্রান্ত যেসব রোগী বাড়িতে থেকেই চিকিৎসা হচ্ছে তাদের সঙ্গে যেন অবশ্যই অক্সিমিটার থাকে। কারণ, এটা সঙ্গে থাকলে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা জানা যাবে। পাশাপাশি, যদি কোনো সময়ে কোনো আক্রান্তের শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যায় তাহলে তা দ্রুত জানা যাবে। দরকার পড়লে তাকে দ্রুত হাসপাতালে ভর্তিও করা যাবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আরো বলছে, ‘যারা করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা করছেন তারা যেন রোগীদের সবসময় সামনের দিকে কিছুটা ঝুঁকিয়ে তাদেরকে বেডে শোয়ান। কারণ এতে দেখা গেছে অক্সিজেন ফ্লো ভালো হয়।’

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বিশেষ পরামর্শ দিচ্ছে যে, করোনা আক্রান্ত রোগীদের শরীরে কম ডোজের ‘anticoagulants’ ব্যবহার করতে। অর্থাৎ রোগীদের যেন কম মাত্রার ‘anticoagulants’ দেওয়া হয়, কারণ বেশি মাত্রায় ‘anticoagulants’ দিলে রক্তের ভেসেলে রক্ত জমাট বেধে যাওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে। বেশি ব্যবহারের ফলে অনেক রোগীর এ থেকে সমস্যা হতে দেখা গেছে।

এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, রোববার (৩১ জানুয়ারি) সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০ কোটি ৩ লাখ ৮ হাজার ৫১০ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২২ লাখ ২৭ হাজার ৭৩৮ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন সাত কোটি ৪৭ লাখ ৩৭ হাজার ২৮৪ জন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here